সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নেত্রকোনার কলমাকান্দায় পাহাড়ী ঢলের পানিতে ভেসে গেছে স্কুল শিক্ষার্থী নেত্রকোণার কেন্দুুয়ায় জুয়ার আসরে পুলিশের অভিযানে আটক-৮ ঃ নদীতে ঝাঁপ দিয়ে এক জুয়ারী নিখোঁজ মদনে সুমনখালী খাল খননে এলাকাবাসীর দাবি। টাকা আত্নসাত মামলায় নেত্রকোনায় মাদ্রাসার হিসাব রক্ষক গ্রেপ্তার ঃ কারাগারে প্রেরণ ময়মনসিংহ রেঞ্জের মাসিক অপরাধ সভায় শেষ্ঠ ওসি নেত্রকোনা মডেল থানার আবুল কালাম সংসদ সদস্য সাজ্জাদুল হাসান বলেন গাছে গাছে সবুজ দেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। নির্বাহী কর্মকর্তার পরিকল্পনায় পাল্টে গেছে মদন উপজেলা পরিষদ চত্বরের দৃশ্যপট মিথ্যা সংবাদ করার প্রতিবাদের সংবাদ সম্মেলন নেত্রকোনায় ফেরী নৌকা ডুবে মাদ্রাসা ছাত্রী নিখোঁজ  নেত্রকোনায় মডেল থানা পুলিশের অভিযানঃ ৪১০ পিস ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যাবসায়ী আটক

নেত্রকোণায় ইউপি মেম্বার হাবলু আটক

রাকিবুল ইসলাম লিমন
  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২৫ জুন, ২০২১
  • ৪৬০ বার পড়া হয়েছে

নেত্রকোণার সদর উপজেলার মেদনী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার সৈয়দপুর গ্রামের আবিল মিয়ার পুত্র হাবলুকে মাদক ও জুয়া বিরোধী বিশেষ অভিযানে বৃহস্পতিবার সন্ধায় আটক করেছে পুলিশ।

উল্লেখ্য বুধবার মধ্য রাতে সদর উপজেলার মেদনী এলাকায় গড়াকান্দা বিলের জনৈক নজরুল ইসলামের উঁচু ভিটিতে জুয়া খেলছিল ২০ থেকে ২৫ জন জুয়ারী এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মডেল থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদের নেতৃত্বে পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।

এ সময় জুয়া খেলারত অবস্থায় পুলিশ কনস্টেবলসহ ৩ জনকে আটক করা হলেও অন্যরা পালিয়ে যায়। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে জুুুুয়া খেলার প্রশ্রয়দাতা ও পালিয়ে যাওয়া জুয়ারীদের খুুঁজে অভিযান অব্যাহত রাখে পুুলিশ।

পরে স্হানীয় ইউপি মেম্বার হাবলু কে জুয়া খেলার প্রশ্রয় দেওয়ার অপরাধে বিশেষ অভিযানে আটক করে পুুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ বলেন জুয়া ও মাদকের ব্যাপারে পুলিশের অবস্থান কঠোর, জুয়ারী, মাদকসেবি ও অসামাজিক কার্যকলাপের প্রশ্রদাতাদের কোন ছাড় নেই, মাদক ও জুয়া বিরোধী বিশেষ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে মেদনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ৯০ দশকের ছাত্রলীগ নেতা, জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক জিল্লুর রহমান খান নোমান বলেন দীর্ঘদিন ধরেই আটককৃত মেম্বারের নামে জুয়া ও মাদক সম্পৃক্ততার কথা অনেকেই বলেছে আমাকে, তাকে কয়েকবার মৌখিকভাবে সতর্ক করার পরও এসব অনৈতিক কাজ হতে নিজেকে দুরে রাখতে পারে নি, স্হানীয় লোকদের সহযোগিতায় আমার ইউনিয়নে প্রত্যন্ত গ্রামে জুয়ার আখড়া গড়ে উঠেছিল যার ফলে এলাকায় চুরি, ছিনতাই বেড়ে গিয়েছিল।

এ বিষয়ে ওসি খন্দকার শাকের আহমেদ বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামিদেরকে পুলিশ বাদি হয়ে মামলা দাযেরকরে বিজ্ঞ আদলতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 khobornetrokona
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin