সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নেত্রকোনার কলমাকান্দায় পাহাড়ী ঢলের পানিতে ভেসে গেছে স্কুল শিক্ষার্থী নেত্রকোণার কেন্দুুয়ায় জুয়ার আসরে পুলিশের অভিযানে আটক-৮ ঃ নদীতে ঝাঁপ দিয়ে এক জুয়ারী নিখোঁজ মদনে সুমনখালী খাল খননে এলাকাবাসীর দাবি। টাকা আত্নসাত মামলায় নেত্রকোনায় মাদ্রাসার হিসাব রক্ষক গ্রেপ্তার ঃ কারাগারে প্রেরণ ময়মনসিংহ রেঞ্জের মাসিক অপরাধ সভায় শেষ্ঠ ওসি নেত্রকোনা মডেল থানার আবুল কালাম সংসদ সদস্য সাজ্জাদুল হাসান বলেন গাছে গাছে সবুজ দেশ বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ। নির্বাহী কর্মকর্তার পরিকল্পনায় পাল্টে গেছে মদন উপজেলা পরিষদ চত্বরের দৃশ্যপট মিথ্যা সংবাদ করার প্রতিবাদের সংবাদ সম্মেলন নেত্রকোনায় ফেরী নৌকা ডুবে মাদ্রাসা ছাত্রী নিখোঁজ  নেত্রকোনায় মডেল থানা পুলিশের অভিযানঃ ৪১০ পিস ইয়াবাসহ ২ মাদক ব্যাবসায়ী আটক

নেত্রকোনায় বন্যার্তদের মাঝে খেলাফত আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রাণ বিতরণ।

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২
  • ১০৮ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহানগরীর আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেছেন,ভারত আন্তর্জাতিক সকল আইন লঙ্ঘন করে বাংলাদেশে পানি আগ্রাসন চালাচ্ছে। যখন পানির প্রয়োজন হয় তখন আমাদের পানির ন্যায্য হিস্যা থেকে বঞ্চিত করে শুকিয়ে মারে। আর বর্ষা মৌসুমে ভারত সকল বাঁধ ছেড়ে দিয়ে এদেশের মানুষকে বন্যার পানিতে ডুবিয়ে মারছে। দেশ ও জাতিকে রক্ষায় ভারতের পানি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে।

মাওলানা হামিদী আরো বলেন, ইসলাম সহমর্মিতা ও মানবতার কল্যাণের ধর্ম। ইসলামের আদর্শই হচ্ছে একে অপরের সহযোগিতা করা, একজন আরেকজনের পাশে দাড়ানো। ইসলামের এই সু-মহান শিক্ষার চেতনার আলোকে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের পাশে সাধ্যমতো সাহায্যের হাত প্রসারিত করে ইসলামী নেতৃবৃন্দ ও আলেম সমাজ যে অবিস্মরণীয় অবদান রেখে চলছে তা চিরস্বরণীয় হয়ে থাকবে।

আজ সোমবার জেলার কলমাকান্দা, মদন ও আটপাড়া উপজেলায় বন্যা প্লাবিত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে সহায়তা প্রদানকালে এ কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি, কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী আলহাজ্ব মৌলভী আবদুর রকিব, বাংলাদেশ খেলাফত যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা গাজী আবদুর রহিম রুহী, মুফতী জয়নাল আবেদিন, মাওলানা আব্দুল হালিম, মাওলানা মোস্তফা, মাওলানা নুরুদ্দিন, হাফেজ আবুল হোসাইন, হাফেজ শামিম, হাফেজ রবিন মুন্না, মুহাম্মদ সাখাওয়াত
হাফেজ ইকবাল হাসান আজাদ ও মাওলানা আশরাফুল ইসলাম বেলাল প্রমূখ।

ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে টিন, চাউল, ডাউল, আলু, সয়াবিন তৈল, বিস্কিট, মিনারেল ওয়াটার, শিশুখাদ্য, ওরস্যালাইন, প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র ও প্রত্যেক পরিবারকে নগদ ১ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়।

আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি বলেন, আমাদেরকে সব ধরনের পাপাচার পরিহার করত বেশি বেশি তওবা ও ইস্তেগফার করতে হবে। আল্লাহর জমীনে আল্লাহর বিধান তথা খেলাফত কায়েমে সবাইকে সচেষ্ট হতে হবে। একমাত্র আল্লাহ তাআলাই সকল প্রকার বিপদ থেকে মানব জাতিকে মুক্তি দিতে পারেন। তিনি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় মানুষের সাহায্যার্থে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।
আলহাজ্ব মৌলোভী আবদুল রকিব বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানো দয়া বা অনুগ্রহ নয়। বরং আমাদের ঈমানী ও মানবিক দায়িত্ব।খেলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হলে ক্ষতিগ্রস্তরা সাহায্যেরজন্য হাহাকার করতে হবে না। নিজ ঘরে থেকে রাষ্ট্রীয় সকল সুযোগ-সুবিধা পাবে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 khobornetrokona
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin